সারাদেশ

রাজবাড়ীতে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট : একদিন বাদ দিয়ে রাজবাড়ীর পদ্মা নদীর পানি আবার বাড়তে থাকায় বন্যা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। প্রথম দফার পানি বৃদ্ধির রেকর্ড ভেঙে শনিবার সকালে পদ্মা নদীর পানি বিপৎসীমার ১১০ সে.মি ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে করে জেলার সদর, গোয়ালন্দ, পাংশা ও কালুখালী উপজেলার প্রায় ৬০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। দুর্গত এলাকায় দেখা দিয়েছে বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্য সংকট।

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসনের তথ্য মতে, গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পয়েন্টে ০.৬ সে.মি বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ১১০ সে.মি ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এছাড়া সদরের মহেন্দ্রপুর ও পাংশা সেনগ্রাম পয়েন্টে পদ্মা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

বন্যা দুর্গত এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, সব জায়গায় পানি, রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। গোয়ালন্দ উপজেলার চার ইউনিয়নের প্রায় ৫০ হাজার মানুষ পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছে। নতুন করে কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া এবং কালিকাপুরের পাঁচ হাজার মানুষ বন্যার কবলে পড়েছে। বন্যায় আক্রন্ত মানুষ যেসব রাস্তায় পানি ওঠেনি সেখানে আশ্রয় নিয়েছে। অনেক এলাকায় বিশুদ্ধ পানি এবং খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে। গবাদি পশু নিয়ে রাস্তায় অবস্থান করায় ডাকাতির আতঙ্কে ভুগছেন এসব মানুষ।

রাজবাড়ী জেলা প্রশাসক দিসলাস বেগম জানান, বন্যায় কবলিত মানুষের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ১৭০ মেট্রিকটন চাল ও নগদ ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা বিতরণের কাজ চলছে। পর্যায়ক্রমে সব দুর্গত এলাকায় ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হবে।

পিএনএস/আনোয়ার

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button