জাতীয়

অর্থের অভাবে থাইল্যান্ডের জঙ্গলে ৩ বাংলাদেশি

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট : কম্বোডিয়ায় ঘুরতে গিয়ে করোনাভাইরাসের কারণে আটকা পড়েন তিন বাংলাদেশি। তাদের সঙ্গে যে টাকা ছিল, খেতে খেতে তাও গেছে ফুরিয়ে। বাংলাদেশ দূতাবাসের সহায়তা নিয়ে দেশে ফিরবেন বলে মনস্থির করলেও কম্বোডিয়ায় বাংলাদেশের দূতাবাস নেই। তাই থাইল্যান্ডে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের সহায়তা নেওয়ার জন্য অবৈধ ভাবে ঢুকতে গিয়ে পথ হারিয়ে ঢুকে পড়েন জঙ্গলে। আর থাইল্যান্ডে ঢুকেই ধরা পড়লেন দেশটির পুলিশের হাতে।

থাই সংবাদ মাধ্যম পাতায়া নিউজ জানায়, গ্রেপ্তার তিনজন হলেন- সোহেল পারভেজ ( ৪০), মোহাম্মদ (২৭) ও আব্দুল করিম আজাদ (৩৩)। তিন জনের কাছেই বাংলাদেশি পাসপোর্ট রয়েছে।

থাই পুলিশকে তারা জানিয়েছেন, গত মার্চে ছুটি কাটাতে কম্বোডিয়া এসেছিলেন তারা। করোনার কারণে আটকা পড়ে তাদের টাকাও শেষ হয়ে যায়। কম্বোডিয়ায় বাংলাদেশের দূতাবাস নেই বলেই তারা দেশে ফেরার সহায়তার জন্য থাইল্যান্ডে ঢুকেন। থাইল্যান্ডে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে দেশে ফেরার ইচ্ছা ছিল তাদের।

থাইল্যান্ড সীমান্ত পুলিশ জানিয়েছে, তিনজনকে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। ১৪ দিন পর দূতাবাসকে তাদের বিষয়ে অবগত করে সাহায্যের আহ্বান জানানো হবে।

থাইল্যান্ড সীমান্ত দিয়ে অনেকেই অবৈধ ভাবে প্রবেশ করেন। থাইল্যান্ডে অবৈধ ভাবে প্রবেশ করাদের অধিকাংশই কম্বোডিয়ার নাগরিক।

পিএনএস/জে এ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button