অপরাধসারাদেশ

গলাচিপায় ডাক্তার দেখাতে এসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার তরুণী! ৫ ধর্ষক গ্রেফতার

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট : গলাচিপায় ডাক্তার দেখাতে এসে আবাসিক হেটেলে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক তরুণী। বুধবার রাতে পৌর এলাকার ১নম্বর ওয়ার্ডের সৈকত মহল নামের একটি আবাসিক হোটেলে এ সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে ১৯ বছরের ওই তরুণী। গলাচিপা থানা পুলিশ গলাচিপা পৌর এলাকার ফেরিঘাটে (পুরান লঞ্চঘাট) এলাকার গভীর রাতে ওই হোটেলে অভিযান চালিয়ে ৫ ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে। এ সময় ধর্ষিতা ওই তরুণীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় ওই তরুণী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার গলাচিপা থানায় ৫ ধর্ষকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। ধর্ষিতাকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জান গেছে, উপজেলার গজালিয়া ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের এক তরুণী গতকাল বুধবার বিকেলে ডাক্তার দেখাতে গলচিপা শহরে যায়। ডাক্তার দেখানো শেষে রাত হওয়ার কারণে ওই তরুণী শহরের আবাসিক গোলে সৈকত মহলে রাত যাপন করেন।

রাত সাড়ে ৮টার দিকে হোটেল ম্যানেজার ফারুকের সহায়তায় তরুণীকের কক্ষে প্রথম প্রবেশ করে তরুণীর পূর্ব পরিচিত শহিদুল নামের এক যুবক। এরপর রাত সাড়ে ৮টা থেকে রাত সাড়ে ১২টা পর্যন্ত চার ঘণ্টা ধরে তরুণীর পূর্ব পরিচিত শহিদুল (২৪), রশিদ গাজী (৩২), স্বপন (৪০), জিতেন (৩৫) ও খোকন ডাক্তার (৪৫) ভয় ভীতি দেখিয়ে জোর পূর্বক ওই তরুণীকে পালা ক্রমে ধর্ষণ করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পুলিশ রাত সাড়ে ১২টায় সৈকত মহল হোটেলে অভিযান চালিয়ে শহিদুলসহ ৫ ধর্ষককে আটক এবং যুবতীকে উদ্ধার করে।

গলাচিপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির (তদন্ত) বলেন, রাতে খবর পেয়ে পুলিশ ৫ ধর্ষককে প্রেপ্তার এবং ধর্ষণের শিকার তরুণীকে উদ্ধার করে। পরে বৃহস্পতিবার ধর্ষিতা বাদী হয়ে ৫ জনের বিরুদ্ধে গলাচিপা থানায় মামলা দায়ের করেন। অসামিদের কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

পিএনএস-জে এ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button