আন্তর্জাতিক

মেক্সিকোতে কবরের জায়গা নেই, পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে লাশ

আজ,৬:১৯,ভোর,০৩.০৮.২০
ইনভেস্টিগেশন ডেস্ক : করোনার আঘাতে ভয়াবহ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর একটি মেক্সিকো৷ নাজেওয়ারকোয়িওটো শহরে মৃত্যুর হার এত বেশি যে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ মৃতদের সমাহিত করতে হিমশিম খাচ্ছে৷

নাজেওয়ারকোয়িওটো শহরের কেন্দ্রীয় কবরস্থানে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় একটির উপর আরেকটি লাশ রাখা হচ্ছে৷ কিন্তু তারপরও পরিস্থিতি সামলানো যাচ্ছে না৷ তাই নতুন মরদেহ জায়গা দিতে কর্তৃপক্ষ মৃত শিশুসহ অনেকের পুরনো কফিন সরিয়ে ফেলছে৷

একটি শিশুর কফিন যেটি আগে কবরস্থানে ছিল, সেটিকে এখন রাস্তায় রাখা হয়েছে৷ যদি তার পরিবার মরদেহটি অন্য কোথাও নিতে না চায় তাহলে সেটি বের করে পুড়িয়ে ফেলা হবে৷ আর তখন তার কফিনে নতুন কোন মৃতের জায়গা হবে৷

কোভিড-১৯ এ মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ গুলোর একটি মেক্সিকো৷ সেখানে ৩১ জুলাই অবধি করোনায় মৃতের সংখ্যা ৪৬ হাজার ৬৮৮ জন, আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা চার লাখ ২৪ হাজার ৬৩৭ জন৷ নাজেওয়ারকোয়িওটো শহরের ক্ষতি হয়েছে সবচেয়ে বেশি৷ মেক্সিকোর সবচেয়ে ঘনবসতিপূর্ণ এই পৌরসভায় প্রতি বর্গকিলোমিটারে ১৫ হাজার মানুষ বাস করেন৷

নাজেওয়ারকোয়িওটো শহরের অবস্থান মেক্সিকোর রাজধানী মেক্সিকো সিটির পাশেই৷ সেখানকার অনেক বাসিন্দা মূলত ছোট খাট ব্যবসা করে জীবন চালান৷ করোনাকালে তাদের পক্ষে জীবন চালিয়ে নেয়া বেশ দুরুহ হয়ে উঠেছে৷

স্বাস্থ্য সচেতনতা মূলক বার্তায় ছেয়ে ফেলা হয়েছে নাজেওয়ারকোয়িওটো৷ এই পোস্টারে লেখা হয়েছে, এটাই তোমার শেষ প্রস্থান নয়৷ তবে নগরবাসীর দাবি শহরটি লকডাউন করা হয়েছে অনেক দেরি করে, আবার সেই লকডাউন খুব দ্রুত তুলেও নেয়া হয়েছে৷ শহরটির মেয়রও বিষয়টি স্বীকার করেছেন৷

মানুষ এত দ্রুত মারা যাচ্ছে যে তাদের সমাধিস্থ করা আর সম্ভব হচ্ছে না৷ তাই অনেক মরদেহ এখন পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে৷ নগরে মরদেহ পোড়ানো স্থানের কর্মীরা জানিয়েছেন, প্রতিদিন আটটা বা তারও বেশি মরদেহ পোড়ানো হচ্ছে৷

এদিকে, অ্যাম্বুলেন্স আর হাসপাতালে করোনা ভাইরাস বেশ দ্রুত ছড়ায় – এমন ধারণা থেকে অনেক পরিবার তাদের করোনা আক্রান্ত সদস্যদের বাসাতেই রাখছেন৷ মেক্সিকোর স্বাস্থ্য ব্যবস্থার উপর অসন্তোষও বাড়ছে৷

পিএনএস/এএ

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button