আন্তর্জাতিক

পাকিস্তানের নতুন মানচিত্রে পুরো কাশ্মির, যা বলছে ভারত

প্রকাশিত : ১৫:১০, আগস্ট ০৫,২০২০

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট : মঙ্গলবার নতুন রাজনৈতিক মানচিত্র প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেখানে গোটা জম্মু-কাশ্মির ও গুজরাটের জুনাগড়কে পাকিস্তানের ভূখণ্ডের অংশ বলে জুড়ে দেয়া হয়েছে। এসব অঞ্চলকে ‘বিতর্কিত’ বলে দাবি করেছে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তান এই মানচিত্র প্রকাশ করার পরেই ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কড়া প্রতিক্রিয়া জানানো হয়, এটা পাকিস্তানের ‘রাজনৈতিক পাগলামি’ ছাড়া আর কিছুই নয়।

জম্মু-কাশ্মিরে ৩৭০ ধারা রদ ও রাজ্যকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করার বর্ষপূর্তি আজ বুধবার। অন্যদিকে রাম মন্দিরের ভূমিপূজাও হবে আজ। তার আগেই পাকিস্তানের নতুন মানচিত্র প্রকাশ করাকে তাৎপর্যপূর্ণ বলেও মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সরকারিভাবে বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, ‘পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান একটি মানচিত্র প্রকাশ করেছেন। যেটা রাজনৈতিক পাগলামি। ওই মানচিত্রে গুজরাটের জুনাগড় ও আমাদের কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল জম্মু-কাশ্মির ও লাদাখকে পাক ভূখণ্ড বলে দাবি করা হয়েছে যা কোনোমতেই সমর্থনযোগ্য নয়। এইসব হাস্যকর দাবি গুলোর আইনগত বৈধতা বা আন্তর্জাতিক বিশ্বাস যোগ্যতা নেই। এই পদক্ষেপ সীমান্ত সন্ত্রাস দ্বারা পুষ্ট হয়ে ভূখণ্ড বিস্তারে পাকিস্তানের বাস্তবতাকেই নিশ্চিত করে।

নতুন ম্যাপ প্রকাশ করে ইমরান খানের দাবি, গত বছর ৫ আগস্ট ভারত সরকার জম্মু ও কাশ্মিরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করে বেআইনি পদক্ষেপ’ নিয়েছিল। পাক ফেডারেল ক্যাবিনেট এই দাবিকে স্বীকৃতি দিয়েছে। পাকিস্তানের সরকারি পাঠক্রমেও এবার থেকে নতুন মানচিত্র ব্যবহার করা হবে বলে দাবি করেছেন ইমরান।

নতুন মানচিত্রে জম্মু-কাশ্মির, লাদাখ এমনকি গুজরাটের জুনাগড়কে ‘বিতর্কিত অংশ’ বলে নিজেদের দেশের ভূখণ্ডের সাথে যুক্ত করেছে পাকিস্তান। শিয়াচেনও জুড়ে দেয়া হয়েছে। ওই মানচিত্রে পূর্ব কাশ্মিরের কোনো সীমানা দেখা যাচ্ছে না। এই অঞ্চল চীনাদের দখলে রয়েছে।

মানচিত্রে ফেডারেল প্রশাসনশাসিত উপজাতীয় অঞ্চলগুলোকে খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের অংশ হিসাবে দেখানো হয়েছে।

ইসলামাবাদের একাধিক গুরুত্ব পূর্ণ রাস্তা শ্রীনগর হাইওয়ে নামকরণে সম্মতি দিয়েছে পাকিস্তান ক্যাবিনেট। এর আগে এই সব সড়ক কাশ্মির হাইওয়ে নামে পরিচিত ছিল।

২০১২ সালেও অ্যাটলাস অফ ইসলামিক রিপাবলিক অফ পাকিস্তান জুনাগড়কে পৃথক অঞ্চল বলে দাবি করেছিল।

সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

পিএনএস/আনোয়ার

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button