জাতীয়

রিমান্ডে যেসব চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে সেই তূর্ণা!

প্রকাশের সময় :
August 14,2020, বিকাল 04:55 pm
আপডেট :
August 14,2020, বিকাল 04:55 pm

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট : প্রতারক চক্রের হোতা তূর্ণা আহসান ওরফে রাহাত আরা খানম তূর্ণাসহ ছয়জনকে রিমান্ডে নেওয়া হলেও থেমে নেই এই চক্রের প্রতারণা। পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) জিজ্ঞাসাবাদে এ বিষয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে এই তরুণী।

জানা গেছে, রাজধানীর বারিধারা, গুলশানসহ অভিজাত এলাকায় বাসা নিয়ে প্রতারক চক্রের সদস্যরা প্রতিনিয়ত অনলাইনে অপকর্ম করে যাচ্ছে। হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। প্রতারক চক্রের কবলে পড়েছেন এমন বেশ কয়েক জনের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে এই চক্রের প্রতারণার নানা কৌশল। ঢাকায় এই চক্রের কয়েক শ সদস্য রয়েছে বলে ধারণা করছেন তদন্ত সংশ্লিষ্টরা।

বিভিন্ন আইডি হ্যাক করে, ফেইক ছবি ও পরিচয় দিয়ে অপকর্ম করে চক্রটি। এক্ষেত্রে নানা অজুহাতে অডিও ও ভিডিও কলে যায় না চক্রের সদস্যরা।

জানা গেছে, এসব চক্রের বাংলাদেশি সদস্যরা মূলত কাস্টমস অফিসার সেজে কথা বলে। ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ব্যবস্থা করে। এক্ষেত্রে শিক্ষিত ও শুদ্ধ উচ্চারণের পারদর্শী বাংলাদেশিদের দলে টানে নাইজেরিয়ানরা। গত বুধবার তূর্ণাসহ ছয়জনকে রিমান্ডে নিয়েছে সিআইডি।

সিআইডির জিজ্ঞাসাবাদে তূর্ণা জানিয়েছে, তার মতো আরো অনেকে রয়েছে চক্রে। তার চক্রেই কাজ করে এমন আরো এক নারী সম্পর্কেও তথ্য দিয়েছে তূর্ণা। ভদ্রবেশী এই নারী আড়ালে ভয়ঙ্কর প্রতারক। নাইজেরিয়ানদের সঙ্গে মিশে এই চক্রের সদস্যরা প্রতিনিয়ত মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে যাচ্ছে।

ধারণা করা হচ্ছে, প্রতি গ্রুপে ১৫-২০ জনে ভাগ হয়ে চক্রের সদস্যরা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে আছে। অন্তত কয়েক শ সদস্য রয়েছে এসব চক্রের। সুন্দর, শুদ্ধ উচ্চারণের জন্যই তূর্ণাকে অগ্রাধিকার দিতো নাইজেরিয়ানরা। তাছাড়া ইংরেজিতেও দক্ষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যবিজ্ঞান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা বিভাগের ২০১১-২০১২ সেশনের এই ছাত্রী।

এ বিষয়ে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার শামসুন নাহার বলেন, প্রতারক চক্র বিপুল টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। ভুক্তভোগী অনেক। কিন্তু স্বামীর অগোচরে স্ত্রী, স্ত্রীর অগোচরে স্বামী চ্যাট করে বন্ধুতায় জড়িয়ে প্রতারণার শিকার হয়েছেন। যে কারণে অনেকেই প্রকাশ্যে আসছেন না। চক্রটি টাকা কোথাও পাচার করেছে কিনা, এসব বিষয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। বিভিন্ন দেশে তাদের যাতায়াত ছিল। তাছাড়া জড়িত অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

গত ২১ জুলাই তূর্ণাসহ এই চক্রের ১৩ প্রতারককে মিরপুর থেকে গ্রেপ্তার করেছে সিআইডি। একইভাবে ২২ জুলাই বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে নূপুর খাতুন নামে এক তরুণী সহ দুই নাইজেরিয়ানকে গ্রেপ্তার করে সিটিটিসির সাইবার অপরাধ তদন্ত বিভাগ।

“সুত্র-পিএনএস/এএ”

“ই,এন,বি”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button