আইন-আদালতসারাদেশ

দাফনের ৩ মাস পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট :
18 August, 2020
প্রকাশের সময় : বিকাল,05:21 pm
প্রকাশের সময় : বিকাল,05:13 pm

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা সরাইলে উপজেলা দাফনের তিন মাস পর স্কুল ছাত্রের লাশ কবর থেকে উত্তোলণ করেছেন পুলিশ। সোমবার (১৭আগস্ট) দুপুরে উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের আইরল গ্রামের হেলাল মিয়ার শিশু পুত্র ও আইরল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণির ছাত্র বায়েজিদ(৮) এর লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। সরাইল উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ফারজানা প্রিয়াংকা, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো: শফিকুল ইসলাম এর উপস্থিতিতে লাশটি কবর থেকে উত্তোলণ করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত ১৩মে সকালে আইরল গ্রামের পুকুর ঘাটের সিড়িঁতে অজ্ঞান অবস্থায় শিশু বায়েজিদকে নিকটাত্বীয় ও স্থানীয় লোকজন সেবা-শুশ্রæষা করেন। অবস্থার পরিবর্তন না হলে তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর সে মারা যায়। করোনা পরিস্থিতির এই সময়ে জেলা সদর হাসপাতাল থেকে লাশ বাড়িতে এনে স্থানীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়। দাফনের ২মাস পর গত ১৯জুলাই হেলাল মিয়া তাঁর শিশু পুত্র বায়েজিদকে হত্যার অভিযোগ এনে প্রতিবেশী মাসুক মিয়াসহ ৯জনের বিরুদ্ধে আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

আদালতের নির্দেশে গত ৩১জুলাই সরাইল থানায় মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়। আদালতের আদেশে আজ সোমবার(১৭আগস্ট) কবর থেকে শিশু বায়েজিদের লাশ উত্তোলণ করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা করা হয়েছে। এ ব্যপারে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ফারজানা প্রিয়াংকা বলেন, লাশটিতে পঁচন ধরলেও শরীরের সব জায়গায় মাংশ আছে। ফরেনসিক নিরীক্ষায় সঠিক ফলাফলই আসবে। স্বাক্ষীরা বলছেন মুখের এক পাশে জখমের চিহ্ন রয়েছে। ময়না তদন্তের পরই পুরো বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

“সুত্র পিএনএস/এসআইআর”

“ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button