আন্তর্জাতিক

চলতি বছরেই আসছে চীনের করোনা ভ্যাকসিন

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট :
19 August, 2020
প্রকাশের সময় : মধ্যরাত,01:53 am
আপডেট : মধ্যরাত,01:55 am

চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি চায়না ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল গ্রুপ (সিনোফার্ম) চলতি বছরের শেষ নাগাদ নভেল করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন বাজারজাত করতে আশাবাদী বলে জানিয়েছে।

সিনোফার্ম চেয়ারম্যান লিউ জিনঝেন বলেছেন, কোম্পানিটির অন্যতম ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক ইউনিট বর্তমানে তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল বা মানব শরীরে পরীক্ষার পর্যায়ে রয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে এখন পর্যন্ত প্রায় ১৫ হাজার মানুষের ওপর এই ভ্যাসকিন প্রয়োগ করা হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে চীনের এই ভ্যাকসিন বাজারে আসতে পারে।

লিউ নিজেও ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ নিয়েছেন এবং গ্লোবাল টাইমসকে বলেছেন, ভ্যাকসিনের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এখন পর্যন্ত তার মধ্যে অনুভূত হচ্ছে না।

চীনের বেইজিং ও উহান নগরীতে সিনোফার্মের কারখানায় বছরে যথাক্রমে ১২ কোটি ও ১০ কোটি ডোজ তৈরি করতে সক্ষম। চীনা এই ভ্যাকসিনের দুই ডোজের দাম পড়তে পারে এক হাজার ইউয়ানের কম (প্রায় ১২ হাজার টাকা বা ১৪৪ ডলার)।

লিউ বলেন, এর দাম খুব বেশি হবে না। এতে একটি ডোজের জন্য কয়েকশ ইউয়ান লাগবে, দুই ডোজ মিলে খরচ পড়বে এক হাজার ইউয়ানের নিচে।

বিশ্বে অন্তত ২০০ ভ্যাকসিন তৈরির চেষ্টা চলছে, যার মধ্যে প্রায় ২০টি ভ্যাকসিন এ মুহূর্তে মানবপরীক্ষার ধাপে রয়েছে। ট্রায়ালের পর্যায়ে থাকলেও এখন পর্যন্ত প্রায় ৫৭০ কোটি ডোজের অর্ডার পেয়েছে কোম্পানিগুলো।

যুক্তরাষ্ট্রের মডার্না যে ভ্যাকসিন বাজারে নিয়ে আসতে যাচ্ছে তার দাম পড়বে ৩২ থেকে ৩৭ ডলারের মধ্যে। আরেক আমেরিকান কোম্পানি ‘ফিজার’ ও তাদের সহযোগী ‘বায়োটেক এসই’র ভ্যাকসিনে প্রতি ব্যক্তির খরচ পড়বে প্রায় ৪০ ডলার।

সূত্র: রয়টার্স ও বিবিসি।

“পিএনএস/এএ”

“ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button