জাতীয়

ছাদে বাগান করলে ১০ শতাংশ কর রেয়াত

ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট :
মঙ্গলবার, ২৫ আগস্ট ২০২০
১০ ভাদ্র ১৪২৭,০৫ মুহাররম
১৪৪২ হিজরী,০৯:১০ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাধীন এলাকার ভবনগুলোতে ছাদ বাগান করলে হোল্ডিং কর থেকে ১০ শতাংশ রেয়াত করার ঘোষণা দিয়েছেন ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম। একই সঙ্গে একটি নীতিমালার আলোকে ছাদ বাগান করা ভবনগুলোতে সনদ দেওয়া হবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

মঙ্গলবার (২৫ আগস্ট) রাজধানীর মিরপুরে ডিএনসিসির ওয়ার্ডগুলোতে এক লাখ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে একথা বলেন মেয়র আতিকুল ইসলাম।

‘সবুজে সাজুক ঢাকা’ স্লোগান সামনে রেখে দুই ধাপে ডিএনসিসির ৫৪টি ওয়ার্ডে প্রায় এক লাখ গাছ লাগানো হবে। প্রথম ধাপে প্রতিটি ওয়ার্ডে এক হাজারটি করে মোট ৫৪ হাজার এবং বাকি গাছগুলো দ্বিতীয় ধাপে লাগানো হবে বলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাসাবাড়ির ছাদ ও বারান্দায় বাগান করা উৎসাহিত করে কর রেয়াতে ঘোষণা দেন আতিকুল ইসলাম।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, যারা ছাদ বাগান করবে আমরা তাদের ১০ শতাংশ পর্যন্ত কর (হোল্ডিং ট্যাক্স) রেয়াত করবো। একটি নীতিমালা করা হবে।৷ তার আলোকে ছাদ বাগান করা মালিকদের সার্টিফিকেট দেওয়া হবে। আর নগরীতে যেসব গাছ লাগানো হবে তার দায়িত্ব নগরবাসীদের নিতে হবে। যে ভবনের সামনে গাছ লাগানো হবে সেই গাছ যেন বেড়ে উঠতে পারে, কেউ যেন উপরে না ফেলে সেই দায়িত্ব ওই ভবন মালিককে নিতে হবে।

মেয়র বলেন, ঢাকা শহরকে এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে বাঁচাতে হলে গাছ লাগানোর বিকল্প নেই। প্রত্যেক পাড়া-মহল্লা, ক্লাব, স্কুল-কলেজের আশপাশে যেসব গাছ লাগানো হবে, আমরা প্রত্যেকে পাঁচটি করে গাছের রক্ষণাবেক্ষণ করলে ‘বিপ্লব’ ঘটে যাবে।

ঢাকায় সবুজায়নের গুরুত্ব তুলে ধরে আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকার পরিবেশ আমাদেরই বাঁচাতে হবে। ঢাকাকে সুন্দর করে সাজাতে হবে। নতুন প্রজন্মকে বাঁচাতে হবে। আর এর জন্য গাছের বিকল্প নেই। ঢাকায় প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ৪৯ হাজার লোক বসবাস করেন। এই লোকগুলোকে বাঁচার জন্য একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

এই উদ্যোগে সিটি করপোরেশনকে ১ লাখ গাছ দিয়ে সহযোগিতা করেছে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো বাংলাদেশ-(বিএটি বাংলাদেশ)।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক শরীফ জামিল, নাগরিক ঢাকার সভাপতি এম নাঈম হোসেন, ডিএনসিসির পরিবেশ উন্নয়ন বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ১৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর হুমায়ুন রশিদ জনীসহ অন্যরা। অনুষ্ঠান শেষে কাউন্সিলরদের মাঝে নিজ নিজ ওয়ার্ডের জন্য চারা গাছ বিতরণ করা হয়।

“ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি “

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button