রাজনীতি

অনলাইনে ধর্ষণের হুমকি বন্ধে কড়া আইন দরকার: নুসরাত জাহান

ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি :
শুক্রবার : ২৮ আগস্ট ২০২০
প্রকাশের সময় : ০৩:৩৪ পিএম
১৩ ভাদ্র ১৪২৭
০৮ মুহাররম
১৪৪২ হিজরী
অনলাইন সংস্করণ

বর্তমানে মানুষ সোশ্যাল মিডিয়াকে নিজের মত প্রকাশের এক বিশেষ মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করে। মহিলারাও নিজেদের মতামত স্পষ্টভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেন। আর সেই জন্য নেটিজেনদের আক্রমণের মুখেও পড়তে হয় তাদের। তবে কোনো মহিলার মতামতের বিরোধিতা করতে গেলে আগে তার চরিত্র বিশ্লেষণ করতে শুরু করে মানুষ। মহিলা মানেই, তার বিরোধিতা করার জন্য কয়েকটি নির্দিষ্ট আক্রমনাত্মক শব্দ ব্যবহার করা হয়। আর তারপরেই ধর্ষণ বা খুনের হুমকি দেওয়া হয়।

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় এই অভ্যাস আরো প্রকট হয়ে উঠেছে। মহিলাদের সঙ্গে যুক্তি বা তর্কে না গিয়ে এভাবে তাদের আক্রমণ করা হয় বা অশ্লীল ভাষায় ট্রোল করা হয়। অভিনেত্রী নুসরাত জাহানকেও এমন আক্রমণের শিকার হতে হয়েছে।

কখনো টিকটক ভিডিও করে অথবা কখনো পার্লামেন্টে ওয়েস্টার্ন পোশাক পরার জন্য ট্রলিং এর শিকার হয়েছেন তিনি। এছাড়াও বিভিন্ন বিষয় আক্রমণের মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় মহিলাদের ধর্ষণ ও খুনের হুমকি দেওয়ার প্রবণতা নিয়ে কথা বললেন অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরাত জাহান।

সংবাদমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়ার কাছে বললেন, ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ডে বলা হচ্ছে মানে বিষয়টা কিন্তু মিথ্যে নয়। দ্রুত নেগেটিভিটি ছড়িয়ে পড়ছে। অনলাইনে মহিলাদের হেনস্থা করার প্রবণতা ক্রমশ বাড়ছে। মহিলাদের ধর্ষণের হুমকি দেওয়া বা তাদের উপর নীতি পুলিশ করা একটা অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেকোনো বিষয়ে মহিলাদের দিকে আঙ্গুল তোলা হচ্ছে। রান্না করা হোক, কোনো পোশাক পরা নিয়ে, বা কোনো মতামত প্রকাশ করাকে কেন্দ্র করেও তাদেরকে আক্রমণ করা হচ্ছে।

তারকা সংসদ আরো বলছেন, মানুষ অসুস্থ মস্তিষ্ক নিয়ে মহিলাদের অনলাইনে ধর্ষণের হুমকি দিচ্ছে। এগুলো প্রত্যেকটি নকল নাম ও আইডির অ্যাকাউন্ট থেকে করা হয়। অনলাইনে যেভাবে এইধরনের নেগেটিভিটি বাড়ছে তা নিয়ে আমি সত্যি চিন্তিত। যদিও আমি বিষয়গুলোকে সেভাবে পাত্তা দেই না। বাস্তবে আমি স্টকার এবং প্রচন্ড পাগল ভক্তদের দেখেছি। তাই আমি জানি এদের সঙ্গে কেমন আচরণ করতে হয়। আমার মূল মন্ত্র হলো, নেগেটিভিটি কে এড়িয়ে চলা।

সমাজে আসলের মানুষের চিন্তাধারা কেমন তাই প্রতিফলিত হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর সেই প্রতিফলন থেকেই বোঝা যায় যে মানুষ মহিলাদের বিষয়ে কেমন ধারণা পোষণ করে। আর সেই জন্যই অনলাইনে অবাধে তাদের ধর্ষণের হুমকি দেওয়া যায় অথবা ট্রোল করা যায়। এমনই মনে করেন নুসরাত। তাই অভিনেত্রী বলছেন, এই ধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে আমাদের কড়া আইন দরকার।

সুত্র-পিএনএস/এএ

“ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button