আন্তর্জাতিক

রুশ যুদ্ধবিমানের ধাওয়া খেয়ে পালাল মার্কিন পরমাণু বোম্বার বহর

ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি :
রবিবার :০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০
প্রকাশের সময় :০৪:২২ পিএম
২২ ভাদ্র ১৪২৭ :১৭ মুহাররম
১৪৪২ হিজরী :অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের পরমাণু বোম্বার বহরকে ধাওয়া দিল রুশ যুদ্ধবিমান। রাশিয়া অধিকৃত ক্রিমিয়ার আকাশসীমায় প্রবেশের চেষ্টা করলে তাৎক্ষণিক ৮টি রুশ যুদ্ধবিমান এই ধাওয়া দেয়।

ইউক্রেন থেকে ক্রিমিয়ার আকাশসীমায় প্রবেশের সময় শুক্রবার এ ঘটনা ঘটে। খবর আরটি’র।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানায়, দেশের সীমান্তে পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর তিনটি বি-৫২এইচ স্ট্র্যাটেজিক বোম্বার শনাক্ত করে রুশ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা।

এরপর চারটি সু-২৭ এবং চারটি সু-৩০ রুশ যুদ্ধবিমান তাৎক্ষণিক ওই বোম্বার বহরকে ধাওয়া করে রাশিয়ার আকাশসীমা থেকে বের করে দেয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বিমানের রুশ ফেডারেশনের সীমান্ত লঙ্ঘন ঠেকানো হয়েছে।

তিনটি বোম্বারের উড্ডয়নের কথা উল্লেখ করে রুশ সংবাদ মাধ্যম আরটি দাবি করেছে, ইউক্রেন এবং কৃষ্ণ সাগরে বিপুলসংখ্যক মার্কিন ও ব্রিটিশ গোয়েন্দা বিমান ও জাহাজ গোপন নজরদারির জন্য মোতায়েন রয়েছে। বি-৫২ বোম্বারগুলো ক্রিমিয়ার আকাশসীমায় রুশ রাডার এবং প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যাচাই করে দেখছে বলে মনে হচ্ছে। গত ২০১৪ সালের মার্চে ক্রিমিয়াকে নিজ ভূখণ্ডে একীভূত করে নেয় রাশিয়া।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, এ ধরনের কৌশল (অন্যের আকাশসীমায় ঢুঁ মারা) স্নায়ুযুদ্ধের সময় সচরাচর ঘটতো, তবে আধুনিক সময়ে বিরল।

র‌াডার এবং ক্ষেপণাস্ত্র স্থাপনা শনাক্তের পাশাপাশি এই ফ্লাইটের নেপথ্যে ইউক্রেনের ওপর নিজেদের প্রভাব বোঝাতে যুক্তরাষ্ট্রের শক্তি প্রদর্শনের উদ্দেশ্যও থাকতে পারে বলে এতে উল্লেখ করা হয়।

এদিকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার দিন শেষে ইউএস ইউরোপিয়ান কমান্ড ওই মিশনের কথা স্বীকার করেছে। ইউক্রেনের যুদ্ধবিমানের সঙ্গে প্রশিক্ষণ মিশনে ওই তিন বোম্বার অংশ নিয়েছিল বলে তারা জানায়।

প্রসঙ্গত, মার্কিন নিরাপত্তা বাহিনীর বিমানের গতিরোধ করার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। সর্বশেষ দুই সপ্তাহ আগে কৃষ্ণ সাগরে আন্তর্জাতিক আকাশসীমায় যুক্তরাষ্ট্রের বি-৫২ বোম্বারের আরেকটি ফ্লাইটের গতিরোধ করে রুশ যুদ্ধবিমান।

সূত্র: পিএনএস/আনোয়ার
“ইনভেস্টিগেশন নিউজ বিডি”

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button